Logo
শিরেোনাম ::
মানবাধিকার ফাউন্ডেশন ট্রাস্ট অব বাংলাদেশ সিলেট বিভাগীয় কমিটি গঠ কুমিল্লা চৌদ্দগ্রামে ভেজাল বিটুমিন তৈরি কারখানায় অভিযান মালিক সহ ২জনকে কারাদন্ড এ্যাডভোকেট এ এম মোয়াজ্জেম হোসেন’র মৃত্যু বার্ষিকীতে বঙ্গবন্ধু আইন ছাত্র পরিষদের শ্রদ্ধা নিবেদন পটিয়া জিরি ইউনিয়নে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় পরিবারের পাশে কেন্দ্রীয় নেতা বদিউল আলম প্লাস্টিক বর্জ্য সামুদ্রিক ও জলজ জীবনের সবচেয়ে বড় হুমকি কুমিল্লা চৌদ্দগ্রাম উপজেলার কাশিনগর বাজারে নিরাপত্তার স্বার্থে সিসি ক্যামেরা উদ্বোধন কবিতাঃ “একটি স্বচ্ছ হৃদয়” ডুয়েট উপাচার্যের সাথে ‘করিমগঞ্জ প্রতিবন্ধী স্কুল’ এর প্রতিনিধিবৃন্দের সৌজন্য সাক্ষাৎ ‘করিমগঞ্জ প্রতিবন্ধী স্কুল’ এর পক্ষ থেকে ডুয়েট উপাচার্যকে মাস্ক উপহার কুমিল্লা চৌদ্দগ্রামে আন্তঃজেলা গ্রিলকাটা চক্রের ৬ সদস্য গ্রেফতার ।

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসে ডুয়েট ছাত্রলীগের মোমবাতি প্রজ্জ্বলন ও শ্রদ্ধা নিবেদন

রিয়াদ আহমদ, বার্তা সম্পাদক / ২৫৬ বার
আপডেট সময় : সোমবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০২০

ডুয়েট প্রতিনিধিঃ- ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ডুয়েট) এ শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষ্যে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে সন্ধ্যায় শহীদ মিনারে (মোমবাতি)আলোক প্রজ্জ্বলন করে ডুয়েট ছাত্রলীগ।
ডুয়েট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শহীদদের প্রতি সম্মান প্রদর্শন ও তাদের স্মরণে মোমবাতি প্রজ্জলনের সময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের যন্ত্রপ্রকৌশল বিভাগের অধ্যাপক ও রেজিস্ট্রার (চলতি দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো. আসাদুজ্জামান চৌধুরী, শারীরিক শিক্ষা বিষয়ক পরিচালক অধ্যাপক আবুল কাসেম, তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাজহারুল ইসলাম, ডুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক বিনয় ব্যানার্জী সহ ডুয়েট ছাত্রলীগের বিভিন্ন নেতা-কর্মী।

ডুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক বিনয় ব্যানার্জী তার বক্তব্যে বলেন, ১৪ ডিসেম্বর আমাদের এক কালো অধ্যায়, ১৯৭১ সালের এই দিনে জাতিকে মেধাশুন্য করার জন্য রাজাকার, আল-বদর, আল-শামসরা লেখক, শিল্পী, বুদ্ধিজীবীদের নৃশংস ভাবে হত্যা করে। আজ সেই রাজাকার, আল-বদর আবার জেগে উঠেছে। বঙ্গবন্ধুর প্রতি অসম্মান করছে। এই পাকিস্তানি প্রেতাত্মাদের সকল ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে লড়বে ডুয়েট ছাত্রলীগ।প্রয়োজনে রাজপথে নামবে তবুও তাদের চক্রান্ত সফল হতে দিবে না।”


সহকারী অধ্যাপক মাজহারুল ইসলাম
বুদ্ধিজীবী হত্যাকারীদের ধিক্কার জানান।এখনো যারা দেশকে মেধাশুন্য ও দেশের অগ্রগতিকে যারা বাধাগ্রস্ত করতে চাচ্ছে ছাত্রলীগকে তাদের বিরুদ্ধে সোচ্চার থাকার ও ছাত্রলীগকে রাজনীতির পাশাপাশি মেধার দিকে এগিয়ে থেকে দেশকে সঠিকভাবে নেতৃত্ব দেয়ার যোগ্যতা অর্জন করার আহ্বান জানান।

অধ্যাপক আবুল কাসেম তার বক্তব্যে ১৪ই ডিসেম্বরকে শোক দিবস হিসেবে গণ্য করে সময় তিনি সকল শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন ও সকল যুদ্ধোপরাধীদের দ্রুত বিচার করার দাবি জানান।একই সাথে বলেন স্বাধীনতা বিরোধী আল-বদর,আল-শামস, জামায়াত-শিবিরের প্রেতাত্মা আমাদের মাঝে এখনো বিচরন করছে। তাই তিনি ছাত্রলীগকে নিজস্ব জ্ঞানে পরিপুর্ন হয়ে জামাত-শিবিরকে রুখে দেওয়ার জন্য আহ্বান জানান।

প্রধান অথিতির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. আসাদুজ্জামান বলেন, ১০ ডিসেম্বর থেকে শুরু করে ১৪ ডিসেম্বর। যখন মা তার সন্তানকে আগলে রাখতে চেয়েছিল তখন রাজাকার, আল-বদর আল-শামস আমাদের সন্তানদের অনেক মারাত্মকভাবে ক্ষত বিক্ষত করে হত্যা করে। তারা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নকে নস্যাৎ করে এদেশকে মেধাশূন্য করতে চেয়েছিল। তাদের সাথে যোগ দেয় আমাদের দেশের কুলাঙ্গার কিছু মানুষ,এর সাথে যুক্ত ছিলো জামায়াত শিবির রাজাকার।
আজ জননেত্রী শেখ হাসিনা এসব কুচক্রীদের জাল ভেদ করে তার বাবার স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করার চেষ্টা করছেন।
তিনি আরো বলেন,বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে আমাদের লোক সংখ্যা কম,আমাদের সংখ্যা বাড়াতে হলে ছাত্রলীগকে জ্ঞান-বিজ্ঞানে,গবেষণায়, সাহিত্যে,সাংবাদিকতায় আরোও এগিয়ে যেতে হবে।
সবশেষে তিনি এমন আয়োজনের জন্য ডুয়েট ছাত্রলীগকে ধন্যবাদ জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com