Logo
শিরেোনাম ::
করোনা রোগীদের অক্সিজেন সিলিন্ডার দিলেন রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ডাঃসবুজ মানবাধিকার ফাউন্ডেশন ট্রাস্ট অব বাংলাদেশ সিলেট বিভাগীয় কমিটি গঠ কুমিল্লা চৌদ্দগ্রামে ভেজাল বিটুমিন তৈরি কারখানায় অভিযান মালিক সহ ২জনকে কারাদন্ড এ্যাডভোকেট এ এম মোয়াজ্জেম হোসেন’র মৃত্যু বার্ষিকীতে বঙ্গবন্ধু আইন ছাত্র পরিষদের শ্রদ্ধা নিবেদন পটিয়া জিরি ইউনিয়নে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় পরিবারের পাশে কেন্দ্রীয় নেতা বদিউল আলম প্লাস্টিক বর্জ্য সামুদ্রিক ও জলজ জীবনের সবচেয়ে বড় হুমকি কুমিল্লা চৌদ্দগ্রাম উপজেলার কাশিনগর বাজারে নিরাপত্তার স্বার্থে সিসি ক্যামেরা উদ্বোধন কবিতাঃ “একটি স্বচ্ছ হৃদয়” ডুয়েট উপাচার্যের সাথে ‘করিমগঞ্জ প্রতিবন্ধী স্কুল’ এর প্রতিনিধিবৃন্দের সৌজন্য সাক্ষাৎ ‘করিমগঞ্জ প্রতিবন্ধী স্কুল’ এর পক্ষ থেকে ডুয়েট উপাচার্যকে মাস্ক উপহার

চবির বিভিন্ন বিভাগের অসমাপ্ত পরীক্ষাগুলো স্বাস্থ্যবিধি মেনে সম্পন্নের সিদ্ধান্ত

নাজনীন ফারাবী বর্ষা , চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি / ২৩৮ বার
আপডেট সময় : রবিবার, ১৫ নভেম্বর, ২০২০

চবি প্রতিনিধি : করোনাভাইরাসের কারণে আটকে থাকা বিভিন্ন বিভাগের অসমাপ্ত পরীক্ষা স্বাস্থ্যবিধি মেনে শীঘ্রই নেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) কর্তৃপক্ষ। তবে পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে আবাসিক হলগুলো বন্ধ থাকবে। এছাড়া ভর্তি পরীক্ষা সশরীরে নেয়ার বিষয়েও সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

রবিবার (১৫ নভেম্বর) দুপুরে অনুষ্ঠিত একাডেমিক কাউন্সিলের সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক এস এম মনিরুল হাসান।

তিনি বলেন, করোনার কারনে আটকে থাকা পরীক্ষা স্বাস্থ্যবিধি মেনে নেয়ার বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে একটি কমিটি গঠন করতে উপাচার্যকে ক্ষমতা দেয়া হয়েছে। এসময় আবাসিক হলগুলো খোলা থাকবে না। তবে বিভাগীয় সভাপতিরা শিক্ষার্থীদের সাথে আলোচনা করে সুবিধামতো সময়ে পরীক্ষার রুটিন দিবেন।

তিনি আরও বলেন, ভর্তি পরীক্ষা সশরীরেই হবে। এ বিষয়ে সবাই একমত হয়েছেন। আমরা ডিসেম্বর পর্যন্ত অপেক্ষা করবো। এইচএসসির রেজাল্ট দিলে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নিবে কেন্দ্রীয় ভর্তি কমিটি।

প্রসঙ্গত, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের শংকায় মার্চের মাঝামাঝিতে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি)। ফলে দুই একটা কোর্স বাকি থাকতেই স্থগিত হয়ে যায় বিভিন্ন বর্ষে চলমান ফাইনাল পরীক্ষা। আর এতে করে বিপাকে পড়েছেন বিভিন্ন বিভাগের কয়েক হাজার শিক্ষার্থী।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে অসমাপ্ত পরীক্ষা নেয়ার দাবিতে দুই দফা মানববন্ধন ও উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপিও দিয়েছে বিভিন্ন বিভাগের ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের প্রেক্ষিতে অবশেষ অসমাপ্ত পরীক্ষার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com