Logo
শিরেোনাম ::
মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালন উপলক্ষে দক্ষিণ ভূর্ষি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের প্রস্তুতি সভা মাসিক স্বাস্থ্য সচেতনতায় বটবৃক্ষের প্রথম ইভেন্ট সিলেট জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জয়নাল আবদিনকে ইউপি সদস্য সুহেল আহমেদের শুভেচ্ছা শ্রীমঙ্গল উপজেলায় মানবতার সেবায় উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্হাপন করেছে সাতগাঁও প্রবাসী ফোরাম জাতিসংঘের ‘এসডিজি অগ্রগতি পুরষ্কার’ অর্জন করায় প্রধানমন্ত্রীকে ডুয়েট উপাচার্যের অভিনন্দন ভোলাগঞ্জ- দয়ার বাজার রাস্তা সংস্কারে বরাদ্দ মন্ত্রী ইমরান আহমদ কে এড. মাহফুজুর রহমানের অভিনন্দন সিলেট জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জয়নাল আবদিনকে যুবনেতা ফরিদ উদ্দিনের শুভেচ্ছা ডুয়েট ছাত্রলীগ এর প্রচার সম্পাদকের চিকিৎসা বাবদ ৫০ হাজার টাকা দিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী চকবাজার ওয়ার্ড উপ-নির্বাচনে মনোনয়ন জমা দিলেন যারা তানোরে হাসপাতালে এ্যাম্বুলেন্স প্রদান

মারপিটের ঘটনায় আ’লীগ নেতার বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা, এলাকায় বিক্ষোভ

রিয়াজ কালাম, পেকুয়া উপজেলা প্রতিনিধি / ১১৭ বার
আপডেট সময় : শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২০

পেকুয়া উপজেলা প্রতিনিধিঃ- কক্সবাজারের পেকুয়ায় মারপিটের ঘটনায় এবার আ’লীগ নেতার বিরুদ্ধে ধর্ষন মামলা নিল পুলিশ। ভিন্নখাতে প্রবাহিত করে নুরুল আলম (৬৫) নামে ওয়ার্ড আ’লীগের সাবেক সভাপতি বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা রুজু করা হয়েছে বলে এলাকাবাসী দাবী করেছেন।
নুরুল আলম বারবাকিয়া ইউপির পাহাড়িয়াখালী মাঝের পাড়া এলাকার আমিন উল্লাহর ছেলে ও ৩নং ওয়ার্ড আ’লীগের সাবেক সভাপতি। এ ঘটনায় গতকাল রাতে তার অপর ভাই কাঠ ব্যবসায়ী নুর আহমদকে (৫০) বাড়ি থেকে গ্রেফতার করেছে পেকুয়া থানা পুলিশ। ধর্ষণের ঘটনাটি সম্পূর্ণ মিথ্যা দাবী করে প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঠিক তদন্তের মাধ্যমে হস্তক্ষেপ চেয়ে শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে বিক্ষোভ করেছে স্থানীয় এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগী পরিবার। জানাগেছে উপজেলার বারবাকিয়া ইউপির পাহাড়িয়াখালী এলাকায় বৃহষ্পতিবার সন্ধ্যায় নুর আহমদের স্ত্রী দিলুয়ারা বেগম ও আবুল কাসেমের স্ত্রী রুজিনা আক্তারের মধ্যে মারপিটের ঘটনাটি ঘটে। শুক্রবার সকালে পেকুয়া থানায় ধর্ষণ মামলা (১২/২০) রেকর্ড হয়। নুরুল আলম বলেন, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বসতবাড়ির জায়গা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে দু’মহিলার মধ্যে হাতাহাতি হয়েছে। দিলুয়ারা বেগম ছোট ভাইয়ের স্ত্রী। রুজিনা আক্তার চাচাতো ভাইয়ের স্ত্রী। দীর্ঘ ১০বছর ধরে বসত ভিটার জায়গা নিয়ে বিরোধ রয়েছে। ঘটনার সময় আমি বাড়িতে ছিলাম না। অথচ ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে প্রবাসী কাশেমের স্ত্রী রুজিনা আক্তার বাদি হয়ে আমার বিরুদ্ধে ধর্ষন মামলা করেছে। আটক নুর আহমদের স্ত্রী দিলুয়ারা বেগম জানায়, মরিচ ক্ষেতের পানি নিস্কাশন নিয়ে রুজিনার সাথে হাতাহাতি হয়েছে। আমার স্বামী তখন বাড়িতে ছিলনা। আমার স্কুল পড়ুয়া মেয়েকে কামড়িয়ে জখম করে রুজিনা আক্তার। রাতে পুলিশ দিয়ে আমার স্বামীকে ধরে নিয়ে যায়। এমন ঘটনায় আমরা মর্মাহত ও হতবাক। মারপিটের ঘটনায় এদিক সেদিক করে মামলা হতে পারে। কিন্তু জঘন্য মিথ্যা দিয়ে ও অন্য পুরুষ দিয়ে ভিকটিমের ইজ্জত হরণ করে মামলা দায়ের করার বিচার মহান আল্লাহ অবশ্যই করবেন। স্থানীয় জয়নাল আবদীন, নুরুল কবির,বদিউল আলম বলেন, যখন দুই মহিলার মধ্যে মারপিটের ঘটনা ঘটেছে তখন নুরুল আলম মসজিদে নামাজ পড়ছিলেন আর নুর আহমদ বাজারে ছিলেন। আমরা জানতে পেরেছি ঘটনাটি মারপিট ও হাতাহাতির। ধর্ষণের কোন ঘটনা ঘটেনি। গৃহবধু মুবিনা আক্তার, সাহেনা আক্তার, কলেজ শিক্ষার্থী সাদিয়া আক্তার, কলি আক্তার বলেন, দুই বাড়ির মহিলার মধ্যে বসত ভিটের জায়গা নিয়ে বিরোধ রয়েছে। মরিচ ক্ষেতের পানি চলাচল নিয়ে ওই বিরোধ মারপিট হয়েছে। ধর্ষণের মত জঘন্য কোন ঘটনা ঘটেনি। রুজিনা আক্তার পেকুয়া থানার ওসিকে সম্পূর্ণ মিথ্যা তথ্য দিয়ে মামলাটি রুজু করেছে। আমরা এ ঘটনার সুষ্ট তদন্ত দাবী করছি। সমাজপতি আবু তাহের কোম্পানী জানায়, আমি এলাকায় ছিলাম না। মারপিট কিংবা ধর্ষনের ঘটনা কেউ জানায়নি। তবে দু’পরিবারের মধ্যে জায়গার বিরোধ দীর্ঘ দিনের। এটা নিয়ে বিচার শালিসও হয়েছে। কাঠ ব্যবসায়ী আনছার উদ্দিন জানায়, মারপিটের সময় নুরুল আলম আমার সাথে বারবাকিয়া বাজারে মসজিদে নামাজ আদায় করেছে। তাকে ফাঁসানো হয়েছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য এম. এনামুল হক বলেন, নুরুল আলম ও তার জেঠাতো ভাই কাশেম গংয়ের মধ্যে জমি সংক্রান্ত দীর্ঘদিনের বিরোধ রয়েছে। শুনেছি দুই পরিবারের মহিলাদের মধ্যে মারপিট হয়েছে। রাতে জানতে পারি স্ত্রী রুজিনা আক্তার থানায় প্রবীণ আ’লীগ নেতা নুরুল আলমের বিরুদ্ধে থানায় ধর্ষণের অভিযোগ দিয়েছে। একই রাতে তার অপর ভাই নুর আহমদকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। ধর্ষণের ঘটনাটি শুনার পর আমরা সমাজের বেশ কয়েকজন লোক তদন্ত করি। ধর্ষণের কোন ঘটনা ঘটেনি বলে আমরা জানতে পারি। স্থানীয় প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ ঘটনাটি সঠিকভাবে তদন্ত করে আসল দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়। পাহাড়িয়াখালী জামে মসজিদের খতিব আজিম উদ্দিন জিহাদী জানায়, এটা সম্পুর্ন মিথ্যা। মারপিটের ঘটনায় ধর্ষন মামলা হয়েছে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মিন্নত আলী জানায়, ভিকটিমকে পরীক্ষা করাতে ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে আনা হয়েছে। আমি কিছু বলতে পারবনা। ওসি স্যারের সাথে কথা বলেন।পেকুয়া থানার ওসি সাইফুর রহমান মজুমদার বিব্রতবোধ করে জানায়, ধর্ষন মামলা রেকর্ড হয়েছে। তদন্তের স্বার্থে এখন কিছু বলা যাবেনা। এদিকে মারপিটের ঘটনায় আ’লীগ নেতার বিরুদ্ধে ধর্ষন মামলা রেকর্ড হওয়ার খবর এলাকায় চাউর হলে ক্ষোভের দানা বেধেছে এলাকাবাসীর মধ্যে। পুলিশের এমন কান্ডে সর্বত্রে নিন্দার ঝড় বইছে। তারা ঘটনার মুল রহস্য উদঘাটন করতে পুলিশের উর্ধ্বতন মহলের হস্তক্ষেপ চেয়েছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com