Logo
শিরেোনাম ::
হাজীগঞ্জ শাহরাস্তিতে ইঞ্জিঃ মোহাম্মদ হোসাইনের শীতবস্ত্র বিতরন বটবৃক্ষের উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরন ডুয়েটে অনুষ্ঠিত হলো “শহীদ মোস্তফা এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড-২০২১” শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরন করলেন ইঞ্জিঃ মোহাম্মদ হোসাইন পটিয়া উপজেলায় বিভিন্ন এতিমখানার ছাত্রদের মাঝে কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা বদিউল আলমের শীতবস্ত্র বিতরণ শাহজাদপুর প্রিমিয়ার লীগ সিজন-২ শুরু ফিরিঙ্গী বাজার ওয়ার্ড ছাত্রলীগের উদ্যোগে ছাত্রলীগের ৭৪ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করা হয়েছে সদর দক্ষিণ এর বিজয়পুরে বিনামূল্যে “বোন ডেনসিটি মেজারমেন্ট ক্যাম্পেইন” তানোরে ওয়ার্ল্ড ভিশনের ৫০ বছর পূর্তি উদযাপন অনুষ্ঠানে ওমর ফারুক চৌধুরী এমপি নৌকার প্রার্থীকে সমর্থন জানিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন বিদ্রোহী প্রার্থী কাজী আবু জাফর

ধর্ষন যখন বর্ষনের রুপ

রিয়াদ আহমদ, বার্তা সম্পাদক / ৬৩৪ বার
আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৮ অক্টোবর, ২০২০

লেখক- “মোঃ রাকিবুল হাসান”

বিএসসি ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং (অধ্যয়নরত)
ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ডুয়েট), গাজীপুর।

 

” এ পৃথিবীতে যা কিছু আছে চিরকল্যানকর,অর্ধেক তার করিয়াছে নারী, অর্ধেক তার নর”

নারী কে সমগ্র বিশ্বের কল্যানের অর্ধেক ধরা হয়। কিন্তু পরিতাপ ও দুঃখের বিষয়, আজ আমার দেশের নারী গনহারে ধর্ষিত। বয়স,ধর্ম,ডিগ্রী কোন কিছুই ধর্ষনের জন্য প্রতিবন্ধকতা নয়।

হিন্দুরা গরু খায় না, মুসলিম খায়না শুকর
কিন্তু নারী হলে, সবাই মিলে খাবলে খুবলে খায়।

তাহলে কি এর থেকে অমাদের পরিত্রান নেই? অামার মতে, হ্যা অবশ্যই অাছে। সমস্যা যখন অাছে তার সমাধান ও আছে।

ধরুন আপনি দোতলায় উঠবেন, তাহলে আপনাকে ২ টা সিড়ি অতিক্রম করতে হবে। আমার সমাধানও অনেক টা তেমন।

নিচের সিড়ি বাদ দিয়ে উপরের সিড়ি বেয়ে যেমন উঠতে পারবেন না, তেমনি অামার সমাধানের ২ টা ধাপের প্রথম টা বাদ দিলে সমাধান হবে না।

ধাপ-১ঃ ধর্ষনের বিচার প্রক্রিয়া

১। সর্বনিম্ন শাস্তি যাবৎজীবন ও সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ড নিশ্চিত করতে হবে

২।বিচার প্রক্রিয়ায় সময় ক্ষেপন চলবে না। দ্রুত বিচারের আইনের আওতায় এনে সর্বোচ্চ ৯০ দিনের মধ্যে বিচার কাজ সম্পন্ন করতে হবে।

৩। Anti Rapping Force (ARF) গঠন করতে হবে। যে ফোর্স কাজ করবে স্বাধীনভাবে এবং সরাসরি প্রধানমন্ত্রী ছাড়া কারো কাছে জবাবদিহির জন্য বাধ্য থাকবে না।

৪। আদালতে ধর্ষন মামলা নিষ্পত্তি ও বিচারের জন্য একটি সতন্ত্র বেঞ্চ থাকবে। এই বেঞ্চের সম্মানীত বিচারকগন অন্য কোন মামলার বিচার করবেন না।

ধাপ – ২ঃ সু-শিক্ষা।

শিক্ষা ব্যাতিত সভ্য জাতি গড়া কখনোই সম্ভব নয়। যারা গোল্লায় গেছে তাদের বিচারিক প্রক্রিয়ায় সংশোধন করা যাবে। নতুন করে অামাদের সন্তান যেন ধর্ষনের মত নোংড়া কাজে না জড়ায় তার জন্য দরকার সু-শিক্ষা। চলুন দেখে অাসি কি কি করা যেতে পারে তার জন্য-

১। কোন ধর্মই নগ্নতা, ভ্রস্টতা শেখায় না। তাই স্বীয় ধর্মের জ্ঞান অর্জনের সুযোগ করতে হবে।

২। নারীর প্রতি সম্মান দেখানো এবং নারী যে ভোগ্য বস্তু নয়, তার শিক্ষা ছোট বেলা থেকে বাসায় এবং স্কুলে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহনের মাধ্যমে দিতে হবে।

৩। প্রত্যেক পাড়ায়, প্রত্যেক মহল্লায় তরুন দের উদ্যোগে জনসচেতনতা মূলক ইভেন্ট করতে হবে।

১ম ধাপ ব্যবহার করে, বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করা হবে, ২য় ধাপ ব্যাবহার করে ভবিষ্যত ধর্ষক তৈরির পথ বন্ধ করতে হবে।

আমি আশাবাদী, যদি এই উপায়ে অাগানো যায়, ইনশা আল্লাহ, ইনশা আল্লাহ আমরা ধর্ষন রোধ করতে সক্ষম হবো।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com
P