Logo
শিরেোনাম ::
ঢাকা বিভাগের শ্রেষ্ঠ রোভাররের অ্যাওয়ার্ড পেলেন বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষার্থী হৃদয় শ্রীমঙ্গলে পৌর নির্বাচনে নৌকার মাঝি অধ্যক্ষ সৈয়দ মনসুরুল হক শহীদ শেখ রাসেলের জন্মদিনে রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের আলোচনা সভা ও দোয়া গাউছিয়া অটো রাইচ মিল মালিকের পক্ষ থেকে পটিয়া মুন্সেফ বাজারে পণ্য বিক্রয় কেন্দ্রের শুভ উদ্বোধন গরীব,দুস্থ ও জেলেদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করলেন প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসাইন বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় ডুয়েটের ১৯ শিক্ষক বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় পবিপ্রবির ২৩ শিক্ষক তানোর উপজেলা বাসীকে শারদীয় দূর্গা পূজার আগাম শুভেচ্ছা জানিয়েছেন যুবলীগ নেতা মঈনুদ্দীন সোনার বাংলা সমাজকল্যাণ সংস্থার নতুন সভাপতি মোঃ আবুল হোসাইন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ কামরুল হাসান শ্রীমঙ্গলে আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী ভানুর জয়

হাজারো স্বপ্ন নিয়ে ডুয়েট এর ১৮ তম বর্ষে পদার্পন

মোঃ রিয়াদ আহমদ , বার্তা সম্পাদক / ৪১৮ বার
আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২০

ডুয়েট প্রতিনিধিঃ ০১ সেপ্টেম্বর ২০০৩ইং তারিখ থেকে যাত্রা শুরু করে নানা সংগ্রাম করে কন্টক পথ পথ পাড়ি দিয়ে আজ ১৮ তম জন্মবার্ষিকীতে পদার্পন করলো ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর ( ডুয়েট) ।

১৯৮০ সালে ১২০ জন শিক্ষার্থী নিয়ে রাজধানীর তেজগাঁও শিল্প এলাকায় কলেজ অব ইঞ্জিনিয়ারিং হিসেবে যাত্রা শুরু করে প্রতিষ্ঠানটি। সেসময় এখান থেকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেকট্রিকাল এবং ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং, মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে চার বছর মেয়াদী ব্যাচেলর ডিগ্রী অর্জন করা যেতো। ১৯৮৩ সালে কলেজ অব ইঞ্জিনিয়ারিং এর নাম পরিবর্তন করে ঢাকা ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ (ডিইসি) নামে গাজীপুরের বর্তমান ক্যাম্পাসে স্থানান্তর করা হয়। প্রতিষ্ঠার পর থেকে সম্মুখীন হওয়া বিভিন্ন সমস্যা মোকাবেলায় ১৯৮৬ সালে সরকারের অর্ডিন্যান্সের মাধ্যমে ডিইসিকে বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অফ টেকনোলজি (বিআইটি) ঢাকাতে রুপান্তরিত করা হয়।সর্বশেষ ২০০৩ সালের ১ সেপ্টেম্বর ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় নামে বিশ্ববিদ্যালয়ে রূপান্তরিত হয়। যা এখন হাজারো লক্ষ ডিপ্লোমা শিক্ষার্থীদের স্বপ্নের ক্যাম্পাস হিসেবে পরিচিত।
আজ ০১ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখে ডুয়েট তার ১৮ তম জন্মবার্ষিকীতে পদার্পণ করায় ডুয়েটিয়ানদের মাঝে আনন্দকর পরিবেশ বিরাজমান। করোনার কারনে ছাত্র ছাত্রীরা ক্যাম্পাসে না থাকায় তা আয়োজন করতে না পারলেও অনলাইনে বিভিন্ন যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের অনুভূতি প্রকাশ করেছেন।সাথে ডুয়েটের বিভিন্ন সংগঠনগুলিও অনলাইনে ডুয়েটের প্রতি তাদের ভালোবাসা প্রকাশ করেছে। এছাড়াও আজকের ডুয়েট ডে উপলক্ষে ডুয়েটের শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে বিশ্ববিদ্যালয়ে এবং অনলাইনে সকল শিক্ষকদের মাঝে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয় এবং মিষ্টি বিতরন করা হয়।
ডুয়েট শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. মো ওবায়দুর রহমান বলেন, “অনেক আন্দোলন এবং সংগ্রামের এই ডুয়েট ডে তে সকলকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। আজকের ডুয়েট প্রতিষ্ঠায় আমি কৃতজ্ঞচিত্তে ডুয়েট আন্দোলন সময়ের নেতৃত্বদানকারী শিক্ষার্থীদের ও তৎকালীন শিক্ষক সমিতি তথা সিনিয়র শিক্ষকবৃন্দের ভূমিকার কথা শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছি। ভবিষ্যতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নতি ও উৎকর্ষ সাধনে সকল শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারী মিলে একটি ডুয়েট পরিবার হিসেবে কাজ করার এবং এগিয়ে যাবার প্রত্যয় ব্যক্ত করছি।”

ভারপ্রাপ্ত রেজিস্টার ও মেকানিকাল ইন্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক আসাদুজ্জামান বলেন,”ডুয়েটের প্রাণ প্রিয় শিক্ষার্থীদের স্বপ্ন ও সম্ভাবনাকে আমাদের নতুন জ্ঞান সৃষ্টিতে কাজে লাগাতে হবে | ফলিত গবেষণার সাথে সাথে মৌলিক গবেষণায় আমাদের শিক্ষার্থীদের সম্পৃক্ত করতে হবে | ডুয়েটকে প্রকৃত অর্থে প্রাণে ধারণ করে শিক্ষা ও গবেষণাকে এগিয়ে নিতে আমাদের সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকুক | ডুয়েট হয়ে উঠুক শিক্ষা ও গবেষণার বিশ্বজনীন সূতিকাগার | চাকরিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে ডুয়েটের শিক্ষার্থীদের ন্যায্য অধিকারকে প্রতিষ্ঠিত করতে সবাইকে আন্তরিক হতে হবে | ব্যক্তি ও গোষ্ঠী স্বার্থের উর্দ্ধে উঠে ডুয়েটের স্বার্থকে প্রাধান্য দিয়ে জব ফেয়ার, আন্তর্জাতিক কনফারেন্স, পৃথিবীর বিভিন্ন ইন্ডাস্ট্রি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে কলাবোরেশন, টেক ফেস্ট, দেশের বিভিন্ন গবেষণা প্রতিষ্ঠান ও ইন্ডাস্ট্রিগুলোর সাথে কলাবোরেশন, ভূমি সম্প্রসারণ, শিক্ষার্থীদের অর্থনৈতিক নিরাপত্তা বিধান, ওয়ার্ল্ড রাংকিংয়ে জায়গা করে নেওয়া সহ সবক্ষেত্রে বাস্তব ভূমিকা রাখতে সবাইকে সচেষ্ট হতে হবে | যে স্বপ্ন নিয়ে আমাদের মেধাবী শিক্ষার্থীরা এগিয়ে চলছে সে সম্ভাবনার ক্ষেত্র বাড়ানোর মাধ্যমে আমাদের সব জায়গায় কাজ করে যেতে হবে | জয় আমাদের হবেই হবে এই হোক ডুয়েটের শুভ জন্মদিনের প্রত্যাশা |

এছাড়াও বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, ডুয়েট শাখার সাধারণ সম্পাদক বিনয় ব্যানার্জী বলেন,” ডুয়েট আমাদের প্রানের ক্যাম্পাস। এর নামের সাথে জড়িত আছে হাজরো ছাত্রের হাজারো স্মৃতি, আবেগ আর ভালোবাসা। ডুয়েটকে কেন্দ্র করেই গড়ে ওঠে হাজার স্বপ্নের। এরকম হাজারো স্বপ্নে ভালোর জন্য হাজারো সমস্যার সমাধানের জন্য সকল ছাত্রছাত্রীদের জন্য হয়ে ডুয়েট ছাত্রলীগ সবসময় কাজ করে যাচ্ছে এবং ভাবিষ্যতে ও যাবে । দোয়া রাখি ডুয়েট ছাত্রলীগ যেন সব সময় ডুয়েটের জন্য কাজ করে যেতে পারে এবং ডুয়েট যেন সকল স্বপ্ন ভালোবাসাকে কেন্দ্র করেই যেন এগিয়ে যায় বহুদূর, উন্নয়নের চরম শেখরে । শুভ জন্মদিন ভালোবাসার ডুয়েট৷ ”
উল্লেখ্য যে আজকের এইদিনে রুয়েট, চুয়েট, কুয়েটও ১৮তম বছরে পদার্পণ করেছে।।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com
P