Logo
শিরেোনাম ::
করোনা রোগীদের অক্সিজেন সিলিন্ডার দিলেন রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ডাঃসবুজ মানবাধিকার ফাউন্ডেশন ট্রাস্ট অব বাংলাদেশ সিলেট বিভাগীয় কমিটি গঠ কুমিল্লা চৌদ্দগ্রামে ভেজাল বিটুমিন তৈরি কারখানায় অভিযান মালিক সহ ২জনকে কারাদন্ড এ্যাডভোকেট এ এম মোয়াজ্জেম হোসেন’র মৃত্যু বার্ষিকীতে বঙ্গবন্ধু আইন ছাত্র পরিষদের শ্রদ্ধা নিবেদন পটিয়া জিরি ইউনিয়নে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় পরিবারের পাশে কেন্দ্রীয় নেতা বদিউল আলম প্লাস্টিক বর্জ্য সামুদ্রিক ও জলজ জীবনের সবচেয়ে বড় হুমকি কুমিল্লা চৌদ্দগ্রাম উপজেলার কাশিনগর বাজারে নিরাপত্তার স্বার্থে সিসি ক্যামেরা উদ্বোধন কবিতাঃ “একটি স্বচ্ছ হৃদয়” ডুয়েট উপাচার্যের সাথে ‘করিমগঞ্জ প্রতিবন্ধী স্কুল’ এর প্রতিনিধিবৃন্দের সৌজন্য সাক্ষাৎ ‘করিমগঞ্জ প্রতিবন্ধী স্কুল’ এর পক্ষ থেকে ডুয়েট উপাচার্যকে মাস্ক উপহার

ডুয়েটে কর্মরত জ্যেষ্ঠ প্রকৌশল শিক্ষকদের মধ্য থেকে ভাইস-চ্যান্সেলর মনোনয়নের দাবী ডুয়েট শিক্ষক সমিতির

শেখ মোঃ মুরাদ, ডুয়েট প্রতিনিধি / ৬০৪ বার
আপডেট সময় : রবিবার, ৩০ আগস্ট, ২০২০

ডুয়েট প্রতিনিধিঃ- ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর –এর সার্বিক স্বার্থ রক্ষায় অভ্যন্তরীণ জ্যেষ্ঠ প্রকৌশল শিক্ষাবিদগনের মধ্য থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভবিষ্যত ভাইস-চ্যান্সেলর মনোনয়ন করা হোক, এমনটাই দাবী ডুয়েট শিক্ষক সমিতির।

ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর, দেশের একটি স্বনামধন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যা ২০০৩ সালে বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে এবং ইতোপূর্বে এই প্রতিষ্ঠানটি ১৯৮০ সাল থেকে ঢাকা ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ ও তৎপরবর্তীতে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি (বিআইটি), ঢাকা নামে পরিচালিত হয়েছিল।

উল্লেখ্য যে, বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার প্রায় আট (৮) বছর পর্যন্ত যোগ্যতাসম্পন্ন আভ্যন্তরীণ জ্যেষ্ঠ প্রকৌশল শিক্ষক থাকার পরেও, অন্য প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ে ভাইস-চ্যান্সেলর হিসেবে নিয়োগ প্রদান করা হয়ে আসছিল।

সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর আদর্শের ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নকারী বর্তমান ক্ষমতাসীন দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, ২০০৯ সালে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার গঠন করার পরই ২০১২ সালে প্রথমবারের মতো অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত আভ্যন্তরীণ একজন জ্যেষ্ঠ প্রকৌশল শিক্ষককে ভাইস-চ্যান্সেলর হিসেবে নিয়োগ প্রদান করা হয়। পরবর্তীতে একই ধারাবাহিকতা বজায় রেখে বর্তমান সরকার ২০১৬ সালেও বিশ্ববিদ্যালয়ের উক্ত জ্যেষ্ঠ প্রকৌশল শিক্ষককে দ্বিতীয় মেয়াদে ভাইস-চ্যান্সেলর নিয়োগ প্রদান করেন, যার মেয়াদ গত ২৮ আগষ্ট, ২০২০ -এ শেষ হয়েছে। পর পর দুই মেয়াদে আভ্যন্তরীণ একজন জ্যেষ্ঠ প্রকৌশল শিক্ষককে ভাইস-চ্যান্সেলর হিসেবে নিয়োগ প্রদান করায় শিক্ষক সমিতির পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতি এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপনসহ অশেষ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি।

‘বিশ্ববিদ্যালয় আইন-২০০৩’ অনুযায়ী দুই (২) বারের বেশী একই শিক্ষকের ভাইস-চ্যান্সেলর হবার সুযোগ নাই এবং একই আইনের অনুচ্ছেদ ১০(১) -এ বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন জ্যেষ্ঠ প্রকৌশল শিক্ষাবিদকে ভাইস-চ্যান্সেলর হিসেবে মনোনয়ন প্রদান করা হবে মর্মে উল্লেখ আছে। তাই নিশ্চিতভাবে অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ে একজন নতুন ভাইস-চ্যান্সেলর নিয়োগ প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে শিক্ষা মন্ত্রনালয় সহ সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মতৎপরতা শুরু হওয়াই স্বাভাবিক। কিন্তু, অতি সম্প্রতি কিছু অনলাইন মিডিয়া এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানা যাচ্ছে যে, ভবিষ্যত ভাইস-চ্যান্সেলর প্রার্থী বাছাই এর ক্ষেত্রে অন্য একটি প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক/শিক্ষকবৃন্দকে বিবেচনা করা হচ্ছে।

অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের আভ্যন্তরীণ জ্যেষ্ঠ প্রকৌশল শিক্ষাবিদদের মধ্যে যোগ্য প্রার্থী থাকা স্বত্ত্বেও বাছাই প্রক্রিয়ায় অন্য প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষককে ভাইস-চ্যান্সেলর প্রার্থী হিসেবে দীর্ঘকাল পরে পুনরায় বিবেচনার বিষয়টি উদ্বেগজনক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বার্থের পরিপন্থী বলে শিক্ষক সমিতি মনে করে।

অধিকন্তু, গত ২২/০৭/২০২০ এবং ২৫/০৮/২০২০ ইং তারিখে অনুষ্ঠিত সমিতির সাধারণ সভাসমূহে সম্মানিত শিক্ষকবৃন্দ আভ্যন্তরীণ জ্যেষ্ঠ প্রকৌশল শিক্ষাবিদদের মধ্য থেকে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার-কর্তৃক যোগ্য বিবেচিত কোন শিক্ষককে ভবিষ্যত ভাইস-চ্যান্সলর হিসেবে মনোনয়ন প্রদান করা হবে মর্মে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এতদ্বসংক্রান্ত বিষয়ে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য শিক্ষক সমিতির পক্ষ থেকে গত ২৪/০৭/২০২০ ইং তারিখে একটি অনুরোধপত্র ইতিমধ্যে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রীসহ শিক্ষা উপমন্ত্রী, শিক্ষা সচিব ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিবৃন্দের নিকট প্রেরণ করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক শিক্ষার পরিবেশ ও প্রশাসনিক কার্যক্রমসহ চলমান উন্নয়ন প্রকল্পসমূহের সুচারু বাস্তবায়নের স্বার্থে আভ্যন্তরীণ জ্যেষ্ঠ প্রকৌশল শিক্ষাবিদগণের মধ্য থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভবিষ্যত ভাইস-চ্যান্সেলর মনোনয়ন ব্যতীত অন্য কোন প্রকার সিদ্ধান্ত হলে শিক্ষক পরিবার তথা সকল স্তরের শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে অসন্তোষ বিরাজ করবে। এই বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরের ও ভিতরের যেকোন কূটকৌশলকে প্রতিহত করতে শিক্ষক সমিতি দৃঢ়ভাবে বদ্ধপরিকর। অতএব, বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান সুষ্ঠু ও সুশৃংখল পরিবেশ বজায় রাখার পাশাপাশি সার্বিক উন্নয়ণের স্বার্থে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নকারী বর্তমান সরকার কখনই অন্য প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভাইস-চ্যান্সলর নিয়োগ দিবে না বলে শিক্ষক সমিতি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com