Logo
শিরেোনাম ::
রাজশাহীতে নির্মাণ করা হচ্ছে শেখ রাসেল শিশুপার্ক কঠোর লকডাউন অমান্য করে অবৈধ মেলা- ১ লাখ টাকা জরিমানা লালমাইয়ে ভুল চিকিৎসায় নারীর গর্ভপাত বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক হচ্ছে মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপজেলায় সংসদ সদস্য জনাব শাহে আলম এর জন্মদিন উপলক্ষে ছাত্রলীগের দোয়া মাহফিল স্বাস্থ্যবিধি মেনে “প্রবাসী সমাজ কল্যাণ তহবিল” এর ঈদ সামগ্রী বিতরণ জৈন্তাপুর, গোয়াইনঘাট ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বাসীকে ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা জানান এড. মাহফুজুর রহমান মোঃ নাসির উদ্দিনের পক্ষ থেকে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের কাছে ৭০০০ মাক্স উপহার গোমস্তাপুরে জিনিয়াস ওয়েলফেয়ার এ্যাসোসিয়েশন এর আয়োজনে করোনা টিকা রেজিস্ট্রেশনের ফ্রি ক্যাম্পেইন রাজশাহী ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজ শাখার মাস্ক বিতরণ কর্মসূচী

লক্ষ্মীপুরে অস্বাভাবিক জোয়ারের পানিতে ৫০ গ্রাম প্লাবিত

এজাজ হাসান পাটওয়ারী, লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধি / ১৯১ বার
আপডেট সময় : রবিবার, ২৩ আগস্ট, ২০২০

লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধিঃ- অস্বাভাবিক জোয়ারের পানিতে লক্ষ্মীপুরের উপকুলীয় এলাকার অন্তত ৫০টি গ্রাম পানিতে তলিয়ে গেছে। তীব্র গতিতে জোয়ারের পানি ঢুকে পড়েছে লোকালয়ে। বারবার অস্বাভাবিক জোয়ারের পানি ঢুকে প্লাবিত হচ্ছে লক্ষ্মীপুরের রায়পুর, কমলনগর, রামগতি ও সদর উপজেলার উপকূলীয় এলাকাগুলো। জোয়ারের পানিতে তলিয়ে গেছে উপকুলীয় এলাকার হাজার হাজার একর ফসলী জমি, মৎস্য খামার। মেঘনার পাড়ে স্থায়ী বেড়িবাঁধ না থাকায় পানিবন্দি হয়ে চরম ক্ষতির শিকার হচ্ছে এখানকার বাসিন্দারা।

জেলার রামগতি উপজেলার মেঘনা নদীর তীরবর্তী বালুরচর, সুজনগ্রাম, জনতা বাজার, মুন্সীরহাট, সেবাগ্রাম, চরআলগী, বড়খেরী, চরগাজী, চরগজারিয়া, চর মুজাম্মেল ও তেলিরচর মুন্সীরহাট বাংলাবাজার, জনতা বাজার ও চেয়ারম্যান বাজার।

কমলনগর উপজেলার চর কালকিনি, চর মার্টিন, চর লরেন্স, সাহেবেরহাট, ফলকন নাছিরগঞ্জ, মাতাব্বরহাট, বাঘারহাট ও পাটারিরহাট ইউনিয়ন পানির নিচে ডুবে যায়।

রায়পুর উপজেলার উত্তর চরবংশী, দক্ষিণ চরবংশী ও চরআবাবিল ইউপির খাসেরহাট, চরলক্ষ্মী, চরবংশী, চরভৈরবী, হাজীমারা, চর কাচিয়া, জালিয়ার চর, কুচিয়ামোড়া, চর ঘাশিয়া, টুনুর চরসহ ২০টি গ্রামে এ পানি ঢোকে।
জোয়ারের কারণে বসতঘর, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও রাস্তাঘাটে হাঁটু পরিমাণ পানি রয়েছে। আবার কোথাও কোথাও কোমর পরিমাণ পানি। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন হাজারো মানুষ।

এদিকে অমাবস্যা ও নিম্নচাপের প্রভাবে গত বুধবার (১৯ আগষ্ট) দুপুর থেকে শনিবার (২২ আগস্ট) বিকেল পর্যন্ত জেলার উপকূলীয় এলাকার গ্রাম গুলোতে ৪-৫ ফুট উচু দিয়ে পানি প্রবাহিত হতে দেখা যায়। এতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, কাঁচা-পাকা বসতঘর, বাজার, রাস্তাঘাট, ব্রিজ-কালভার্ট, মৎস্য ঘের ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। পানিতে ডুবে নষ্ট হচ্ছে ফসলী জমি। মেঘনার উপকূলে বেড়িবাঁধ না থাকায় একদিকে যেমন মেঘনার ভাঙ্গনে বিলিন হচ্ছে বিস্তৃর্ণ জনপদ, অপর দিকে প্রতিদিন জোয়ারের পানিতে ডুবছে জেলার কমলনগর, রামগতি, রায়পুর ও সদরের দু’লক্ষাধিক মানুষ।

তবে মেঘনার বারবার জোয়ারে সবচেয়ে বেশি ক্ষতির শিকার হচ্ছে কমলনগর উপজেলার চল কালকিনি, চর মার্টিন, সাহেবের হাট, চর লরেন্স, চর ফলকন ও পাটোয়ারীর হাট ইউনিয়নের বাসিন্দারা। বৃহস্পতিবারের জোয়ারে এসব ইউনয়নের উপর দিয়ে পানি ৫ ফুট উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়ে উপজেলার সবচেয় বড় বাজার হাজারহাট এলাকায়ও প্লাবিত হয়েছে।

পানিবন্দি এলাকার বাসিন্দারা জানান, প্রতিদিন মেঘনার জোয়ারে তাদের বাড়িঘর ডুবে যায়। রান্না ঘরের চুলা ডুবে থাকায় রান্নার কাজও বন্ধ রয়েছে। ভিজে গেছে জালানির শুকনো লাকড়ি। তিন দিন ধরে রান্না করা খবার মুখে জোটেনি। পানিতে ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে মানবিক বিপর্যয়ে রয়েছেন তারা। এমন জোয়ার তারা আর কখনো দেখেনি। বেড়ি বাঁধ না থাকার কারণে প্রতিদিনই তাদেরে পানিতে থাকতে হচ্ছে। সহায়তা হিসেবে কিছু শুকনো খাবার ও ১০ কেজি চাল দেয়া হচ্ছে। কিন্তু রক্ষাবাঁধ নির্মাণের কোন উদ্যোগ নেই। তারা ত্রাণ চায় না, উপকূলের জানমাল রক্ষায় দ্রুত মেঘনার পাড়ে রক্ষাবাঁধ নির্মাণের দাবী জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com