Logo
শিরেোনাম ::
রাজশাহীতে নির্মাণ করা হচ্ছে শেখ রাসেল শিশুপার্ক কঠোর লকডাউন অমান্য করে অবৈধ মেলা- ১ লাখ টাকা জরিমানা লালমাইয়ে ভুল চিকিৎসায় নারীর গর্ভপাত বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক হচ্ছে মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপজেলায় সংসদ সদস্য জনাব শাহে আলম এর জন্মদিন উপলক্ষে ছাত্রলীগের দোয়া মাহফিল স্বাস্থ্যবিধি মেনে “প্রবাসী সমাজ কল্যাণ তহবিল” এর ঈদ সামগ্রী বিতরণ জৈন্তাপুর, গোয়াইনঘাট ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বাসীকে ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা জানান এড. মাহফুজুর রহমান মোঃ নাসির উদ্দিনের পক্ষ থেকে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের কাছে ৭০০০ মাক্স উপহার গোমস্তাপুরে জিনিয়াস ওয়েলফেয়ার এ্যাসোসিয়েশন এর আয়োজনে করোনা টিকা রেজিস্ট্রেশনের ফ্রি ক্যাম্পেইন রাজশাহী ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজ শাখার মাস্ক বিতরণ কর্মসূচী

পেকুয়া পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে চলছে দালাল এবং অবৈধ লেনদেন সহ ভূতের বিলের রমরমা বানিজ্য

রিয়াজ কালাম, পেকুয়া উপজেলা প্রতিনিধি / ২১৭ বার
আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ৪ আগস্ট, ২০২০

পেকুয়া উপজেলা প্রতিনিধিঃঃ- বিদ্যুৎ নিরবিচ্ছিন্ন এলাকায় বিদ্যুৎ এর নতুন সংযোগ চালু করার জন্য অফিসের স্টাফ কর্তৃক দালানের মাধ্যমে, বিশাল অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে কক্সবাজারের পেকুয়া সাব-জুনাল অফিস।
পেকুয়ায় যেকোনো এলাকায় নতুন করে কোন ব্যাক্তি বিদ্যুৎ সংযোগ নিতে চাইলে ৫০০০ টাকার ঘুষ প্রদান করতে হয় পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের দালালদের যার অর্ধেক টাকার ভাগ চলে যায় পেকুয়া পল্লী বিদ্যুৎ সাব-জুনাল অফিসের এজিএম এর কাছে।চলতি অর্থ বছরে পেকুয়া উপজেলার শিলখালী ইউনিয়নের – ০২ নং ওয়ার্ড ছৈয়দ নগর গ্রামে বিদ্যুৎ এর খুটি আনায়নের জন্য টিকাদার মোঃ আল- আমিন এবং অফিসের ষ্টাব জাফর সাহেব সহ দালান মোঃ রফিক বিদ্যুৎ এর লাইন চালু করার জন্য গ্রাহকের কাছ থেকে প্রতি মিঠার ৫০০০/- করে ১৪ টি মিটারের জন্য প্রায় ৭০০০০/- পর্যন্ত হাতিয়ে নিয়েছে। গ্রাহকেরা বলছে, বিদ্যুৎ এর খুটি আসছে ২০১৯ ইং শুরুতে, আর বিদ্যুৎ এর মিটার আসছে ২০ ইং -ফেব্রুয়ারীর শেষের দিকে, মিটার পাওয়ার ৬ মাস পার হওয়ার পর ও এখনো ট্রান্সফরমার পাইনি। ট্রান্সফরমার এর টিকাদার আল- আমিন এর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, আমার কার্যক্রম শেষ আপনারা অফিসে যোগাযোগ করেন, অফিসে যোগাযোগ করলে অফিস থেকে জাফর সাহেব বলছে , কাগজ পত্র গুলো খুজে দেখি -তখন ফাইল খুঁজা -খুঁজি করে সময় পার করে, আর দালানের মাধ্যমে খরচের টাকা দাবি করে, টাকা দিতে রাজি না হলে, কাগজ পত্র গুলো নিছে ফেলে রাখে, এভাবেই অনিয়ম দুর্নীতি শিকার হচ্ছে পেকুয়ার নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ গ্রাহকেরা।এছাড়াও প্রতি মাসে ভূতের বিল করে গরিব দুঃখী মেহনতি মানুষের লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে পেকুয়া পল্লী বিদ্যুৎ অফিস।স্থানীয় প্রত্রিকা এবং ভিবিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিদিন শত শত অভিযোগ উঠে আসতেছে পেকুয়া পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের বিরুদ্ধে। এসব অভিযোগের ব্যাপারে পেকুয়া সাব-জুনাল অফিসের এজিএম এর সাথে কথা বলার চেষ্টা করা হলে ওনাকে অফিসে পাওয়া যায়নি।খবর নিয়ে জানা যায় এজিএম সাহেব সপ্তাহে ৩ দিনও নিয়মিত অফিসে আসেননা।
পেকুয়া পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের এই হয়রানি থেকে পরিত্রাণ পেতে পেকুয়ার গরীব দুঃখী মেহনতী মানুষ এবং সচেতন মহল যথাযথ কতৃপক্ষের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপের আশায় প্রতিদিন ভিবিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের হয়রানির কথা তুলে ধরতেছেন।এবং এই হয়রানি থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার জন্য মানব বন্ধন করার পরও পেকুয়া পল্লী বিদ্যুৎ সাব জুনাল অফিসের দুর্নীতি কার্যক্রম বন্ধ করা যাচ্ছেনা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com