Logo
শিরেোনাম ::
রাজশাহীতে নির্মাণ করা হচ্ছে শেখ রাসেল শিশুপার্ক কঠোর লকডাউন অমান্য করে অবৈধ মেলা- ১ লাখ টাকা জরিমানা লালমাইয়ে ভুল চিকিৎসায় নারীর গর্ভপাত বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক হচ্ছে মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপজেলায় সংসদ সদস্য জনাব শাহে আলম এর জন্মদিন উপলক্ষে ছাত্রলীগের দোয়া মাহফিল স্বাস্থ্যবিধি মেনে “প্রবাসী সমাজ কল্যাণ তহবিল” এর ঈদ সামগ্রী বিতরণ জৈন্তাপুর, গোয়াইনঘাট ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বাসীকে ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা জানান এড. মাহফুজুর রহমান মোঃ নাসির উদ্দিনের পক্ষ থেকে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের কাছে ৭০০০ মাক্স উপহার গোমস্তাপুরে জিনিয়াস ওয়েলফেয়ার এ্যাসোসিয়েশন এর আয়োজনে করোনা টিকা রেজিস্ট্রেশনের ফ্রি ক্যাম্পেইন রাজশাহী ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজ শাখার মাস্ক বিতরণ কর্মসূচী

চট্টগ্রাম এর বিখ্যাত “ও জেডা ফইরার বাপ” গানের জনক সৈয়দ মহিউদ্দিনের চিকিৎসা সহায়তা তহবিল গঠন

অনিন্দ্য বৈদ্য সানি / ২৭৭ বার
আপডেট সময় : সোমবার, ১৫ জুন, ২০২০

চীফ ব্যুরো চট্টগ্রামঃ চট্টগ্রামের সঙ্গীত জগতের কিংবদন্তী সৈয়দ মহিউদ্দীন

(মহি ভাণ্ডারী) দীর্ঘদিন ধরে নানান জটিল রোগে ভুগছেন। করোনার এই সময়ে তিনি নগরীর চকবাজারস্হ মা মনি হাসপাতালে গত তিন মাস ধরে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এই অবস্থায় ওনার চিকিৎসার জন্য প্রচুর অর্থের প্রয়োজন। চট্টগ্রামের গর্ব এই শিল্পীকে বাঁচাতে ওনার সম্মতিক্রমে ‘শিল্পী সৈয়দ মহিউদ্দীন চিকিৎসা সহায়তা তহবিল’ গঠন করা হয়েছে।

চকবাজার থানা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ নাজিমউদ্দীন উদ্দীনকে আহ্বায়ক ও চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের নিবার্হী সদস্য, মানবিক সংগঠন মুসাফির এর আহ্বায়ক মুহাম্মদ মহরম হোসাইনকে সদস্য সচিব এবং সংগীত শিল্পী প্রেম সুন্দর বৈষ্ণব, সাংবাদিক কমল দাশ ও চেরাগীর আড্ডা এডমিন সমাজ কর্মী শৈবাল পারিয়ালকে সদস্য করে ৫ সদস্য বিশিষ্ট ‘শিল্পী সৈয়দ মহিউদ্দীন চিকিৎসা সহায়তা তহবিল’ গঠন করা হয়েছে।

এই গুণী শিল্পীকে বাঁচাতে নিম্নলিখিত ব্যাংক/বিকাশ নম্বরে যে কেউ অংশ নিয়ে সাহায্য/সহযোগিতা পাঠাতে পারেন।

সাহায্য পাঠানোর ঠিকানাঃ
সৈয়দ মহিউদ্দীন
সঞ্চয়ী হিসাব নং- ১৭২৭০১০০০১৬৬৯
রূপালী ব্যাংক, পাঁচলাইশ শাখা, চট্টগ্রাম।
বিকাশ পারসোনাল- ০১৮১৬৪৪৭৪৪৩ (প্রেম সুন্দর বৈষ্ণব)।

শিল্পী সৈয়দ মহিউদ্দিন এর সংক্ষিপ্ত পরিচয়ঃ

সৈয়দ মহিউদ্দিন দেশের সংগীত অঙ্গনের অতি পরিচিত এবং প্রিয় মুখ। চট্টগ্রামে অসংখ্য গুনী শিল্পীর তিনি ওস্তাদ। সঙ্গীতে পান্ডিত্য আছে, এমন গুনীজনরা সৈয়দ মহিউদ্দিনকে গুরু বলেই সম্বোধন করে। জীবনের সকল স্বাদ আহ্লাদকে তিনি বিলিয়ে দিয়েছেন সঙ্গীতের মাঝে। তাঁর গানের সাথে পরিচিত নয়, দেশে এমন সংগীত বোদ্ধা এবং শ্রোতা নেই বললেই চলে। জীবন শুরু করেছেন শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের মধ্য দিয়ে। গীতিকার এবং সুরকার হিসেবে রয়েছে দেশজোড়া খ্যাতি।

তাঁর রচিত এবং সুরারোপিত গান যা মানুষের মুখে মুখে।
উল্লেখযোগ্য গানের মধ্যে চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গানের প্রাধান্য সবচেয়ে বেশি। ” অ জ্যাডা ফইরার বাপ”, মেজ্জান দিয়ে মেজ্জান দিয়্যে” আসকার ডি’র পুব পারত আঁ র ভাংগা চুরা ঘর, মন হাচারা মাঝি, পিরিত মানে ফুডুর ফাডুর, পাতা বালি, সাম্মান মাঝি সাম্মান বার, গিরাইল্ল্যা কচুর লতি, সহ অসংখ্য জনপ্রিয় গানের জনক তিনি।

সৈয়দ মহিউদ্দিনকে জীবনমুখী আঞ্চলিক গানের স্রষ্টা বলা হয়। আধুনিক গানের ডামাডোলে যখন চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গান আকর্ষণ হারাতে বসেছিল তখনই হাতেগোনা যে কজন গীতিকার-সুরকার চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গানকে আবারও প্রাণ দিয়েছেন সৈয়দ মহিউদ্দিন তাদের মধ্যে একজন। চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গানের সবচেয়ে জনপ্রিয় জুটি শেফালী ঘোষ ও শ্যামসুন্দর বৈষ্ণবের সঙ্গীত গুরু সৈয়দ মহিউদ্দিন। তাঁর কথা ও সুরে শেফালী-শ্যামের বহু গান আজো দাগ কাটে শ্রোতাদের হৃদয়ে, হয়েছে কালজয়ী। শেফালী-শ্যাম যুগের পর চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গানকে আজও দর্শক-শ্রোতাদের মনে ঠাঁই করিয়ে দেয়ার পেছনে অগ্রণী ভূমিকা রয়েছে সৈয়দ মহিউদ্দিনের।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com