Logo

লালমাইয়ে ভুল চিকিৎসায় নারীর গর্ভপাত

রিপোর্টারের নাম / ৪৩ বার
আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২২ জুলাই, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার:
কুমিল্লার লালমাইয়ে গর্ভবতী এক নারীকে ভুল চিকিৎসা দিয়ে গর্ভপাত ঘটানোর অভিযোগ উঠেছে এক হাতুড়ে ডাক্তার ও তার সহযোগীর বিরুদ্ধে।

গত ১৯ জুলাই, ২০২১ লালমাই থানার এক অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার (১৭ জুলাই) সকালে উপজেলার ভূশ্চি বাজারে হাতুড়ে ডাক্তার তৈয়ব আলীর চেম্বারে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত ডাক্তার তৈয়ব আলী(৬০) উপজেলার ভূশ্চি গ্রামের মৃত আলী আকবরের ছেলে ও বিএনপি নেতা। তার সহযোগী মোসাম্মৎ কোহিনূর বেগম (৪০) একই গ্রামের আবদুল মালেকের মেয়ে। জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে এ দুইজন ঐ চেম্বারের পাশে একটি কক্ষে অবৈধ গর্ভপাত সহ ভুল চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছেন। তাদের অপচিকিৎসায় অনেকেই নিঃস্ব হয়েছেন, কেউ পঙ্গু হয়েছেন, এমনকি মারাও গিয়েছেন।

আহত বিউটি (২৭) লালমাই উপজেলার হাজতখোলা সংলগ্ন মহিষবন্দ গ্রামের মোঃ রুহুল আমিনের স্ত্রী।

আহত বিউটি বলেন, তিন মাস যাবৎ মাসিক না হওয়ায় এ বিষয়ে পরামর্শের জন্য একদিন আগে ভুশ্চি বাজারে ডাক্তার তৈয়ব আলী ও তার সহযোগী কোহিনূরের নিকট জানতে গেলে বিষয়গুলো শুনে কোন রকম প্রেগনেন্সি পরীক্ষা না করে আমাকে একটি ঔষধ খাইয়ে দেন। ওই ঔষধ খাওয়ার পর থেকে আমার কোমরে ও তলপেটে ব্যাথা শুরু হয়। পরদিন সকাল থেকে অনেক রক্ত ক্ষরণ হতে থাকে । এতে আমি গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে যাই। ফলে, ঐ ডাক্তারের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি ভুশ্চি চেম্বারে আসতে বলেন এবং পরবর্তীতে আমার অনুমতি না নিয়ে জোর পূর্বক গর্ভপাত করিয়ে আমার সন্তানকে হত্যা করে। আমি প্রশাসনের কাছে আমার সন্তান হত্যার বিচার চাই।

এ বিষয়ে বাগমারা ২০ শয্যা হাসপাতালের আরএমও ডাঃ আনোয়ার উল্লাহ বলেন, ইউএনও ও লালমাই থানার অফিসার ইনচার্জের সাথে কথা বলে ডাক্তারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে লালমাই থানায় অভিযোগ (অভিযোগ নং ৫৩২) করা হয়েছে বলে ভুক্তভোগী বিউটি জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com